সার্কের সাংস্কৃতিক রাজধানী বগুড়ার মহাস্থানগড়

 

This slideshow requires JavaScript.

This slideshow requires JavaScript.

 ২৫  /১১/১৬,সম্পাদনায় ঃ মিথেন  ;  সাংস্কৃতিক রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে দেশের প্রাচীন জনপদ বগুড়ার মহাস্থানগড়।

ঢাকা সফররত সার্ক কালচারাল সেন্টারের পরিচালক ওয়াসান্থে কোতোয়ালার নেতৃত্বে সংস্থার একটি প্রতিনিধিদল বৃহস্পতিবার এ ঘোষণা চূড়ান্ত করে।

আগামী বছরের ২১ জানুয়ারি থেকে এ ঘোষণা কার্যকর হবে বলে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর সূত্র জানায়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই রাজধানীর উদ্বোধন করবেন

বাংলাদেশের একটি অন্যতম প্রাচীন পুরাকীর্তি মহাস্থানগড়। বগুড়া শহর থেকে প্রায় ১৩ কিলোমিটার উত্তরে করতোয়া নদীর পশ্চিম তীরে মহাস্থানগড় সুমহান ঐতিহ্যের সাক্ষী হয়ে আজও দাঁড়িয়ে আছে। প্রাচীন পুণ্ড্রবর্ধন রাজ্যের রাজধানী মহাস্থানগড়ের নাম ছিল পুণ্ড্রনগর। এখানে মৌর্য, গুপ্ত, পাল ও সেন সাম্রাজ্যের প্রচুর নিদর্শন পাওয়া গেছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সাল থেকে সার্ক কালচারাল সেন্টার সার্কভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে কোনো একটি প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী অঞ্চলকে সার্কের রাজধানী হিসেবে ঘোষণা করে আসছে। সার্কভুক্ত দেশগুলোর ইংরেজি নামের আদ্যক্ষরের ভিত্তিতে দেশগুলোর স্থান বেছে নেওয়া হচ্ছে।

যেমন গত বছর সার্কের সাংস্কৃতিক রাজধানী হিসেবে ঘোষণা দেওয়া হয় আফগানিস্তানের বামিয়ানকে।

ব্রিটিশ প্রত্নতত্ত্ববিদ আলেকজান্ডার কানিংহ্যাম ১৮৭৯ সালে প্রাচীন পুণ্ড্রবর্ধন রাজ্যের ঐতিহাসিক নিদর্শন আবিষ্কার করেন । এই রাজ্যের রাজধানী বিস্তৃত ছিল বর্তমানের রাজশাহী, দিনাজপুর এবং ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দিনাজপুর পর্যন্ত।

Advertisements
Posted in Uncategorized | Leave a comment

হিরু আলম সুপার মুনে

নিজেকে নিজে চাঁদে দেখেছেন বলে দাবী জানালেন হিরো আলম !

11:41 AM
সম্পাদকঃঃ মিনহাজুল আবেদিন মিথেন
সুপারমুন ট্রাজেডি : এবার নিজের মুখ‍াবয়ব চন্দ্রপৃষ্ঠে দেখতে পাবার কথা জানালেন হিরো আলম। সম্প্রতি বিষয়টি দেশব্যাপী ব্যাপক আলোচনার জন্ম দিয়েছে।

নিজেকে নিজে চাঁদে দেখেছেন বলে দাবী জানালেন হিরো আলম সুপারমুন ট্রাজেডি
সুপারমুন ট্রাজেডি : চাঁদের বুকে ভেসে ওঠা হিরো আলমের মুখাবয়ব

ফেসবুক নিউজফিডে ‍সুপারমুন অবজারভেশনের ব্যাপারে জানতে পেরে ধানক্ষেতে চাঁদ দেখতে গিয়ে এ বিষয়টি তিনি সর্বপ্রথম উপলদ্ধি করেন বলে ইনবক্সে এক তরুণীকে জানিয়েছেন। আলমের কথামত সুলতানা নামে ওই তরুণী দলবল নিয়ে বাসার ছাদে গিয়ে দেখতে পান, ঘটনা সত্যি ! আলম চাঁদ থেকে তার একটি আঙ্গুল ওই তরুণীর দিকে তাক করে রেখেছেন। এবং কিছু একটা বলার চেষ্টা করছেন !

বিষয়টি দৃষ্টিগোচর হবার পর তারা একে অপরের মুখ দেখাদেখি করতে থাকেন। এবং মুঠোফোনে সুপারমুন এর কয়েকটি ছবি তুলে রাখেন। বিষয়টি আরো অনেকেই দেখতে পেলে পরবর্তীতে তা গণমাধ্যমে প্রকাশ করা হয়।

সুপারমুন ট্রাজেডি’র ব্যাপারে হিরো আলমের কাছে জ‍ানতে চাওয়া হলে তিনি প্রথম আলু সাংবাদিককে বলেন, “কাল সারারাত ঘুম হয়নি। ঘুম না হবার কোনো কারণ ছিল না। কারণ ছাড়াই এই পৃথিবীতে অনেক কিছু ঘটে। চাঁদের আলো ফোঁটা পর্যন্ত অপেক্ষা করে ঘুমোতে গেলাম। সঙ্গে সঙ্গে চোখভর্তি ঘুম। কতক্ষণ ঘুমিয়েছি জানিনা। ঘুম ভাঙলো ফোনের পুচুত পুচুত রিংটোনের শব্দে। সুলতানার ফোন। সবুজ বাটনে টিপে দেয়ার পরই সুলতানা বলে উঠলো, এই আলম, আলম, ওঠ, ওঠ। গাঞ্জা খাবিনা?

Posted in Uncategorized | Leave a comment

আফসানার মৃত্যুর বিচার না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন

 আপডেট: ১৮:৪২, আগস্ট ২২, ২০১৬

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি দিতে গিয়ে পুলিশের বাধার মুখে পড়ে ছাত্র ইউনিয়ন। ছবি: ফোকাস বাংলাস্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি দিতে গিয়ে পুলিশের বাধার মুখে পড়ে ছাত্র ইউনিয়ন। ছবি: ফোকাস বাংলা

রাজধানীর একটি বেসরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থী ফেরদৌস আফসানার মৃত্যুকে হত্যা দাবি করে এর বিচার না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ছাত্র ইউনিয়ন।এই বিচারের দাবিতে আজ সোমবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি দিতে যাওয়ার সময় পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তি হয় ছাত্র ইউনিয়নের নেতা-কর্মীদের। পরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশ করেন তাঁরা। ওই সমাবেশেই ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় নেতারা আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন।
এদিকে আফসানার অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় তদন্তে নতুন কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে কাফরুল থানার পুলিশ।
ছাত্র ইউনিয়নের কর্মী আফসানার মৃত্যুর ঘটনায় দোষী ব্যক্তিদের শাস্তির দাবি জানিয়ে আজ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি দিতে যাওয়ার সময় পুলিশের বাধার মুখে পড়েন ছাত্র ইউনিয়নের নেতা-কর্মীরা। সচিবালয় বরাবর জাতীয় প্রেসক্লাবের কোনায় পুলিশের ব্যারিকেড সরাতে গেলে ছাত্র ইউনিয়নের নেতা-কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের ধস্তাধস্তি হয়। পরে প্রেসক্লাবের সামনেই সমাবেশ করে ছাত্র ইউনিয়ন। সমাবেশে আফসানার মৃত্যুর জন্য ছাত্রলীগ নেতা হাবিবুর রহমানকে দায়ী করে তাঁর শাস্তি দাবি করা হয়।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, বিভিন্ন সময়ে নানা হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে স্মারকলিপি দেওয়া হয়। তাঁরা অভিযোগ করেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কখনো সেসব বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা নেন না। আফসানা হত্যায় অভিযুক্ত ব্যক্তির সঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ছবি প্রকাশ হয়েছে। নিজের লোক বলেই হয়তো স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছেন না।
বক্তারা আরও বলেন, যত দিন ছাত্র ইউনিয়ন টিকে থাকবে, তত দিন এ হত্যার শাস্তির দাবিতে আন্দোলন চলবে। হত্যার বিচার না হলে এ সরকারকে এরশাদ সরকারের মতো টেনে নামানো হবে।

পুলিশের বাধার সম্মুখীন হওয়ার আগে ছাত্র ইউনিয়নের মিছিল। ছবি: ফোকাস বাংলাগত শনিবার বিকেলে আফসানার লাশ মিরপুরের আল-হেলাল হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যায় দুই যুবক। পরিবার থেকে অভিযোগ করা হয়, তেজগাঁও কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান হত্যা করেছেন আফসানাকে।
কাফরুল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিকদার মো. শামীম হোসেন আজ সোমবার প্রথম আলোকে বলেছেন, তদন্তে এখনো বলার মতো কোনো অগ্রগতি হয়নি। গত রোববার আফসানার ফরেনসিক ও ভিসেরা পরীক্ষার জন্য নমুনা দুই জায়গায় পাঠানো হয়েছে। এখনো এর প্রতিবেদন পুলিশের হাতে এসে পৌঁছায়নি।

Aside | Posted on by | Leave a comment

এবার তারা কোথাই ?????

 এবার কি সবাই জামা কাপড়  খুলে ছবি তলে ফেসবুক এ দিবে ????

পিটিয়ে প্রধান শিক্ষকের জামা খুলে নিল আ’লীগ কর্মীরা

চট্টগ্রামে একটি স্কুলের প্রধান শিক্ষককে তার কক্ষ থেকে বের করে বেধড়ক মারধর ও লাঞ্ছিত করেছে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা।

শনিবার দুপুরে চন্দনাইশ উপজেলার জাফরাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। আহত প্রধান শিক্ষকের নাম রহিম উদ্দিন।

উপজেলার বৈলতলি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি কবির আহমদ ও সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেনের উপস্থিতিতে এ ঘটনা ঘটে।

তাৎক্ষণিক ভোটে ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি নির্বাচিত না হওয়ার প্রতিশোধ নিতেই সভাপতি প্রার্থী আনোয়ার মোস্তফা দুলালের লোকজন এ হামলার ঘটনা ঘটায়।

পরে চন্দনাইশ থানা পুলিশ গিয়ে ওই প্রধান শিক্ষককে উদ্ধার করেন।

এ সময় সন্ত্রাসীরা প্রধান শিক্ষকের কার্যালয়ে ভাংচুর ও তাণ্ডব চালায়।

এ ঘটনায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের পাঁচ নেতা-কর্মীকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন আহত প্রধান শিক্ষক।

পুলিশ, প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্র জানায়, চন্দনাইশের বৈলতলী ইউনিয়নে অবস্থিত জাফরবাদ উচ্চ বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় গত ১৪ মে।

শনিবার পূর্ব নির্ধারিত তারিখে ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান শিক্ষকের কার্যালয়ে সভাপতি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সভাপতি হিসেবে আওয়ামী লীগ সমর্থিত নুরুল মোস্তফা ও আনোয়ার মোস্তফা দুলাল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

ব্যবস্থাপনা কমিটির নির্বাচিত অপর ১১ সদস্যের ভোটে সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার কথা। মাধ্যমিক স্কুল পরিদর্শক আবু কাওসারের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত এ নির্বাচনে দেখা গেছে, নুরুল মোস্তফা পেয়েছেন ৮ ভোট। আর আনোয়ার মোস্তফা দুলাল পেয়েছেন মাত্র ৩ ভোট। দুপুর ১টার দিকে ফলাফল ঘোষণা করা হয়।

আনোয়ার মোস্তফা দুলাল বৈলতলী ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী। ২৮ মে এ ইউনিয়নের ভোট অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

সূত্র জানান, চেয়ারম্যান নির্বাচনের আগে স্কুল ব্যবস্থাপনা কমিটিতে পরাজিত হওয়ায় ক্ষুব্ধ হন মাত্র  ৩ ভোট পাওয়া আনোয়ার মোস্তফা দুলাল। তিনি স্কুলের প্রধান শিক্ষক রহিম উদ্দিনের কারণেই পরাজিত হয়েছেন বলে দাবি করেন।

এ সময় আনোয়ার মোস্তফা দুলালের অনুসারী স্থানীয় আওয়ামী লীগ ক্যাডার হিসেবে পরিচিত মো. আলীর নেতৃত্বে একদল নেতাকর্মী লাঠিসোটা নিয়ে প্রধান শিক্ষকের কার্যালয়ে ভাংচুর শুরু করে।

একপর্যায়ে তারা প্রধান শিক্ষক রহিম উদ্দিনকে তার কার্যালয় থেকে শার্টের কলার চেপে ধরে বের করে এনে স্কুলের মাঠে মারধর করতে থাকে।

হামলার সময় বৈলতলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি  কবির আহমদ ও সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন উপস্থিত ছিলেন। তাদের উপস্থিতেই সরকারি দলের নেতাকর্মীরা প্রধান শিক্ষককে মারধর করতে থাকে। হামলাকারীরা প্রধান শিক্ষকের পরনের শার্ট ও গেঞ্জি ছিঁড়ে ফেলে।

খবর পেয়ে চন্দনাইশ থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রধান শিক্ষককে উদ্ধার করেন।

পরে চন্দনাইশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সনজিদা শারমিন স্কুলে উপস্থিত হয়ে প্রধান শিক্ষকের প্রতি সমবেদনা জানান এবং জড়িতদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন।

আক্রান্ত প্রধান শিক্ষক রহিম উদ্দিন সন্ধ্যায় যুগান্তরকে বলেন, ‘ব্যবস্থাপনা কমিটির নির্বাচন প্রভাবিত করার অভিযোগ আনায় আমি নিজে সভাপতি নির্বাচনের ভোট দেয়া থেকে বিরত থাকি।’

‘এর পরও আমাকে দায়ী করে আনোয়ার মোস্তফা দুলালের লোকজন মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার উপস্থিতে আমাকে মারধর করে, লাঞ্ছিত করে। শত শত মানুষের সামনে আমাকে বেইজ্জত করে’ বলেন তিনি।

এ ঘটনায় প্রধান শিক্ষক হামলায় সরাসরি অংশ নেয়া আওয়ামী লীগ ক্যাডার মোহাম্মদ আলীকে প্রধান আসামি করে পাঁচজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করবেন বলেও জানান।

চন্দনাইশ থানার কর্তব্যরত কর্মকর্তা আবুল হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে যুগান্তরকে বলেন, এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে। বিষয়টি ওসি (তদন্ত) নজরুল ইসলামও জানেন। তিনি মামলা রেকর্ড করার নির্দেষ দিয়েসেন

Posted in Uncategorized | Leave a comment

আর পারসি না

আর কতোবার এমনটা হবে?!

স্বপ্ন দেখিয়ে স্বপ্ন ভাঙানোর কোনো দরকার ছিলোনা৷ smile emoticon
স্বপ্ন ভাঙার কষ্ট অনেক বেশি৷
Better luck next time

bdcricteam.com's photo.

published by

ব্লগার মিথেন
Posted in Uncategorized | Leave a comment
আর কতোবার এমনটা হবে?!
স্বপ্ন দেখিয়ে স্বপ্ন ভাঙানোর কোনো দরকার ছিলোনা৷ smile emoticon
স্বপ্ন ভাঙার কষ্ট অনেক বেশি৷
Better luck next time
bdcricteam.com's photo.
Posted in Uncategorized | Leave a comment

Posted in Uncategorized | Leave a comment

blogger mithen

সৌরজগতে নবম গ্রহের সন্ধান!

সৌরজগতে পৃথিবীর চেয়ে প্রায় ১০ গুণ বড় একটি নতুন গ্রহের সন্ধান পাওয়ার দাবি করছেন যুক্তরাষ্ট্রের জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা। গবেষকরা সম্ভাব্য ওই গ্রহটির নাম দিয়েছেন ‘প্ল্যানেট নাইন’। সৌরজগতের অন্যান্য গ্রহ প্রায় বৃত্তাকার পথে সূর্যকে প্রদক্ষিণ করলেও সম্ভাব্য এই গ্রহটি প্রদক্ষিণ করছে অনেক বেশি উপবৃত্তাকার পথে। সূর্যকে একবার পুরো প্রদক্ষিণ করতে ‘প্ল্যানেট নাইন’র সময় লাগে ১০ হাজার থেকে ২০ হাজার বছর। বিবিসি, রয়টার্স।

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজির বিজ্ঞানীরা বলছেন, ওই গ্রহটি নেপচুন গ্রহ থেকে শত শত কোটি মাইল দূরের একটি কক্ষপথে পরিভ্রমণ করছে। কম্পিউটার মডেল থেকে তারা এই তথ্য দিচ্ছেন। মার্কিন জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের ভাষায়, তারা খুব শক্তিশালী প্রমাণাদি পেয়েছেন, যা থেকে বলা যায় যে, এ সৌরজগতে একটি নবম গ্রহ রয়েছে। অষ্টম গ্রহ প্লুটো থেকেও এর অবস্থান অনেক অনেক দূরে। গবেষণাটি সম্প্রতি অ্যাসট্রানোমিক্যাল জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে।

ক্যালিফোর্নিয়া ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি বা ক্যালটেকের একটি গবেষক দল এসব তথ্য তুলে ধরছে। তবে তারা বলছে, গ্রহটির অস্তিত্ব নিশ্চিত করার মতো কোনো সরাসরি পর্যবেক্ষণ এখনও পর্যন্ত করা হয়নি। তবে সৌরজগতের দূরবর্তী বিভিন্ন বস্তুর চলাচল বিশ্লেষণ করে বিজ্ঞানীরা এ সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন। যদি প্রমাণ হয় তবে ওই গ্রহটি হবে পৃথিবীর চেয়েও ১০ গুণ বড়।

Posted in Uncategorized | Leave a comment

minhazul abedin

সৌরজগতে নবম গ্রহের সন্ধান!

সৌরজগতে পৃথিবীর চেয়ে প্রায় ১০ গুণ বড় একটি নতুন গ্রহের সন্ধান পাওয়ার দাবি করছেন যুক্তরাষ্ট্রের জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা। গবেষকরা সম্ভাব্য ওই গ্রহটির নাম দিয়েছেন ‘প্ল্যানেট নাইন’। সৌরজগতের অন্যান্য গ্রহ প্রায় বৃত্তাকার পথে সূর্যকে প্রদক্ষিণ করলেও সম্ভাব্য এই গ্রহটি প্রদক্ষিণ করছে অনেক বেশি উপবৃত্তাকার পথে। সূর্যকে একবার পুরো প্রদক্ষিণ করতে ‘প্ল্যানেট নাইন’র সময় লাগে ১০ হাজার থেকে ২০ হাজার বছর। বিবিসি, রয়টার্স।

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজির বিজ্ঞানীরা বলছেন, ওই গ্রহটি নেপচুন গ্রহ থেকে শত শত কোটি মাইল দূরের একটি কক্ষপথে পরিভ্রমণ করছে। কম্পিউটার মডেল থেকে তারা এই তথ্য দিচ্ছেন। মার্কিন জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের ভাষায়, তারা খুব শক্তিশালী প্রমাণাদি পেয়েছেন, যা থেকে বলা যায় যে, এ সৌরজগতে একটি নবম গ্রহ রয়েছে। অষ্টম গ্রহ প্লুটো থেকেও এর অবস্থান অনেক অনেক দূরে। গবেষণাটি সম্প্রতি অ্যাসট্রানোমিক্যাল জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে।

ক্যালিফোর্নিয়া ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি বা ক্যালটেকের একটি গবেষক দল এসব তথ্য তুলে ধরছে। তবে তারা বলছে, গ্রহটির অস্তিত্ব নিশ্চিত করার মতো কোনো সরাসরি পর্যবেক্ষণ এখনও পর্যন্ত করা হয়নি। তবে সৌরজগতের দূরবর্তী বিভিন্ন বস্তুর চলাচল বিশ্লেষণ করে বিজ্ঞানীরা এ সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন। যদি প্রমাণ হয় তবে ওই গ্রহটি হবে পৃথিবীর চেয়েও ১০ গুণ বড়।

Posted in Uncategorized | Leave a comment

mithen

রানাকে ভুলতে পারেননি ডেভ হোয়াইটমোর

রানাকে ভুলতে পারেননি ডেভ হোয়াইটমোর

আরিফুর রাজু:  মানজারুল ইসলাম রানাকে বলতে হয় বাংলাদেশ ক্রিকেটের একটি অংশ। পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করলেও সবার মনকোঠায় এখনো বিশাল অংশ জুড়ে জায়গা দখল করে আছেন তিনি।

২০০৩ সালে চট্টগ্রামে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অভিষেক হয় রানার। বর্তমান বাংলাদেশে সফররত জিম্বাবুয়ের কোচ ডেভ হোয়াটমোর তাঁর বাঁ-হাতি স্পিন বোলিং ও লেট অর্ডারের ব্যাটিংয়ের যথেষ্ট ভক্ত ছিলেন। ২০০৫ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে তাঁর বোলিং বাংলাদেশের সিরিজ জয়ে দারুণ অবদান রাখে। ২০০৬ সাল পর্যন্ত দলে নিয়মিত হলেও ২০০৭ সালের বিশ্বকাপের আগে তিনি দলে অনিয়মিত হয়ে পড়েন। তাই তাকে জাতীয় দলের স্কোয়াড়ে বিবেচনা করা হয়নি। বিশ্বকাপ খেলতে প্রিয় সতীর্থরা সবাই ত্রিনিদাদ গেলেও তিনি দেশে থেকে যান এবং ২০০৭ সালের বিশ্বকাপে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচের আগে খুলনায় এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন। আর সতীর্থরা ত্রিনিদাদে বসেই শোনেন এই মর্মান্তিক সংবাদ।

দিন গেল বেলা গেল, সেই ২০০৭  থেকে ২০১৬। নয় বছর পার হলো এরইমধ্যে। কিন্তু প্রিয় শিষ্যকে এখনো ভুলতে পারেননি টাইগার দলের তৎকালীন কোচ ডেভ হোয়াইটমোর। সম্প্রতি খুলনার কার্তিক ডাঙ্গায় মানজারুল ইসলাম রানার বাড়ি পরির্দশনে যান ডেভ। দল নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটানো সত্ত্বেও তার মায়ের খোঁজ নিতে ছুঁটে যান তদের বাড়িতে।

এতে করে ডেভ হোয়াইটমোর প্রমাণ দিলেন তিনি কতটা ভালো মনের মানুষ। আর কতটা শিষ্য রানাকে ভালোবাসতেন। আসলে ভালোবাসা এমনই সময় ব্যস্ততা কিছু দিয়ে বেধে রাখা যায় না।

Posted in Uncategorized | Leave a comment